Content on this page requires a newer version of Adobe Flash Player.

Get Adobe Flash player

শেখ ইমরান হোসেনের লেকচারসমগ্র: ইসরাইলের জন্ম [ পূর্নাঙ্গ অনুবাদ]



 

Birth of Israel

THE BIRTH OF ISRAEL
১ম: ১৯১৭ সালের নভেম্বর মাস।
২য়: বৃটিশ সরকার।
৩য়: কিছু অম্ভুত কাজ
৪র্থ: করলো, যা ছিল অবিশ্বাস্যরকম অদ্ভুত এবং রহস্যময়
৫ম: বৃটেন – যা এখন ধর্ম নিরপেক্ষ দুনিয়ার রাজপুত্র।
৬ষ্ঠ: ধর্মনিরপক্ষে দুনিয়া যেটি রাজনীতি থেকে ধর্মকে আলাদা করেছে ।
৭ম: বৃটেন হচ্ছে ধর্মনিরপেক্ষ দুনিয়ার রাজপুত্র।
৮ম: বৃটেন একটি ঘোষণাপত্র জারি করে।
৯ম: যা বালফোর ঘোষনা বলে পরিচিত।
১০ম: ১৯১৭ সালের নভেম্বর মাস।
১১তম: এটি হচ্ছে তার রাজকীয় সরকারের
১২ তম: অভিপ্রায়
১৩তম: একটি ইহুদী জাতীয় রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করা।
১৪তম: পবিত্র ভূমিতে
১৫তম: আপনারা কি তা শুনেছেন?
১৬তম: কেন একটি ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র
১৭তম: যা ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রের নেতৃত্ব দিচ্ছে..
১৮তম : তার ইচ্চার কথা ঘোষনা দেয়
১৯তম: একটি ইহুদী জাতীয় রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করার।
২০তম: মানে একটি ইহুদী রাষ্ট্র..
২১ তম: পবিত্র ভুমিতে..
২২তম: দুই মাস পর, এটা ছিল ১৯১৭ সালের অক্টোবর।
২৩তম: ১৯১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে।
২৪তম: বৃটিশ সেনা বাহিনী
২৫তম: যার নেতৃত্বে ছিল জেনারেল এলেনবি।
২৬তম: যা অটোম্যান ইসলামী সেনাবাহিনীকে পরাজিত করে।
২৭তম: এবং পবিত্র ভুমি মুক্ত করে।
২৮তম: এবং পবিত্র ভুমি মুক্ত করে।
২৯তম: এবং যখন এলেনবি জেরুজালেমে প্রবেশ করে।
৩০তম: বৃেটেনের জেনারেল ঘোষণা দেন
৩১ তম: আজ
৩২ তম: ক্রুসেড শেষ হলো।
৩৩তম: ও ভার ( মানে শেষ)
৩৪ তম: অথচ ক্রসেড সম্পর্কে ধারনা ছিল এটি একটি খ্রীস্টান যুদ্ধ।
৩৫ তম: আপনি তো কোন খ্রীস্টান রাষ্ট্র নন, আপনি তো একটি ধর্ম নিরপেক্ষী রাষ্ট্র।
৩৬ তম: কীভাবে ধর্মনিরপেক্ষ ব্রিটেন।
৩৭তম: পোপ দ্বারা সূচিত ক্রুসেডকে সামনে এগিয়ে নিতে পারে।
৩৮তম: হাজার বছর আগে..
৩৯তম: যা ছিল অদ্ভুত … অবিশ্বাস্যরকম অদ্ভুত।
৪০তম: ১৯১৮ এবং ১৯৪৮ সালের মধ্যে
৪১তম: বৃটিশ দ্বীপপুন্জই পবিত্র ভূ-খন্ড শাসন করে।
৪২তম: বৃটিশ দ্বীপপুন্জই পবিত্র ভূ-খন্ড শাসন করে।
৪৩তম: লীগ অব নেশন্সের দ্বারা পাশ করা আদেশ বলে।
৪৪তম: এবং সেই সময়ে মধ্যে
৪৫তম: এবং সেই সময়ে মধ্যে
৪৬ তম: ভয়ানক রকম কুটকৌশলের মাধ্যমে।
৪৭তম: ভয়ানক রকম কুটকৌশলের মাধ্যমে।
৪৮তম: যখন মনে হচ্ছিল ইহুদীদের বের করে দেওয়া হচ্ছে।
৪৯তম: কিন্তু বৃটেন ইউরোপের ইহুদীরে জন্য দরজা খুলে দিচ্ছিল।
৫০তম: পবিত্র ভূমিতে প্রবেশের জন্য।
৫১তম: এবং এই দাবী পুনরায় করার জন্য এই ভুমি হচ্ছে তাদের
৫২ তম: এডলফ হিটলারের সেই মধ্যবর্তী সময়ের মধ্যে ..
৫৩তম: যা ‍ইহুদীদেরকে ইউরোপ থেকে পবিত্র ভূমিতে যাবার গতিকে আর বেগবান করে।
৫৪তম: যা ‍ইহুদীদেরকে ইউরোপ থেকে পবিত্র ভূমিতে যাবার গতিকে আর বেগবান করে।
৫৫তম: ১৯৪৮ সালে
৫৬তম: বৃটেন কিছু অদ্ভুত কাজ করলো।
৫৭তম: বৃটেন একটি রাষ্ট্র ..
৫৮তম: যার আইনের শাসনের প্রতি ভয়ানক রকম আনুগত্য..
৫৯তম: যার আইনের শাসনের প্রতি ভয়ানক রকম আনুগত্য..
৬০তম: কিন্তু ১৯৪৮ সালে ..
৬১ যখন বৃটেন পবিত্র ভুমি ত্যাগ করলো , সে ত্যাগ করলো . রাতের আধারে চোরের বেশে
৬২তম: প্রথম সময়ে এবং কেবল এই প্রথম বৃটিশ ইতিহাসে .
৬৩ তম: বৃটেন থেকে উত্তরাধিকারপ্রাপ্ত রাষ্ট্র ক্ষমতা হস্তান্তরে কোন বৈধ হস্তান্তর ঘটেনি।
৬৪তম: ১৯৪৮ সালে বৃটেন ধাত্রীর ভুমিকায় অবতীর্ণ হয়..
৬৫তম: আসন্ন শিশুটির জন্য..
৬৬তম: ইউরোপীয় ইহুদীরে ইসরাইল রাষ্ট্র …
[ শেষ]


© Copyright
All rights reserved to Editor
Editor
Muhammad Shamim Akhter
Contact
Pallabi, Dhaka
Bangladesh
Mobile phone: 01536179630 / 01914042834
email: shamim2sh@gmail.com