Content on this page requires a newer version of Adobe Flash Player.

Get Adobe Flash player

ইতিহাসের শিক্ষা মিথ্যা হবে না। 



2017-636199516683910430-391

মুহাম্মদ শামীম আখতার, ২ সেপেটম্বন ২০১৭: অনেকে বলেন ইতিহাস জানা কেন দরকার? কেন কুরআনে ইউসুফ আ., মুসা আ. এর কথা বলা হয়েছে? পুরানো কাসুন্দি ঘাটার দরকার কি? প্রকৃত সত্য হচ্ছে অতীতের ঘটনার উপর বর্তমান প্রতিষ্ঠিত এবং বর্তমান ঘটনার উপর ভবিষ্যত প্রতিষ্ঠিত। আজকে যে বৌদ্ধ মতবাদ – যাকে কোন ধর্ম বলা যায় না, কারণ সেখানে কোন আল্লাহর অস্তিত্ব নেই, সে মতবাদ যখন এলো তখন ছিল বাংলা মুলুকে পাল শাসন। এ শাসনকে কচু কাটা করে উচ্ছেদ করে সেনরা। এ সেনরা ছিল ধ্বংসাত্মক হিন্দু এবং এদের হাত দিয়েই পাহারপুর ধ্বংস হয়। আর ঠিক সে সময় আরবের দরবেশ বেশী মুজাহিদর এ বাংলাকে মুক্ত করে। সেদিন থেকে বৌদ্ধরা মুসলমানদেরকে ত্রেতা মনে করে। আমাদের বাংলার ইতিহাসে মুসলমান -হিন্দু সংঘাত যত হয়েছে, বৌদ্ধদের সাথে সে সংঘাত হয়নি। তবু বৌদ্ধরা হিন্দুদের আইন গ্রহণ করে, যে আইনের রূপকার ছিল ইংরেজরা । এ ইংরেজরা আসার পর থেকে হিন্দু-বৌদ্ধ- খ্রিস্টান একতা গড়ে উঠে এবং নৈতিকভাবে স্খলিত বৌদ্ধরা মুসলমানদের বলয় থেকে বেরিয়ে ধীরে ধীরে ইংরেজ হিন্দু বলয়ে চলে যায়। যদি থাইল্যান্ডের কথা ধরেন তবে দেখবেন সেখানকার বৌদ্ধ রমনীদের স্বামী যদি বৌদ্ধ হয়, তাহলে হোটেলে তার হ্যান্ডসাম স্বামী হয় ইউরোপ, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়ার কোন এক খ্রিস্টান।
বাংলাদেশে শান্তিবাহিনী বলুন আর নাসাকা বা বর্তমান বার্মিজ সুকি বাহিনী – নেপথ্যে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান একতার মেরুকরণ। যে মুসলমানরা তাদেরকে বাঁচতে সহায়তা করলো – তারা আজ তাদের শত্রু হলো। আমি এটাকে মুসলমানদের জন্য ইতিবাচক মনে করি। মুসলমানদের শাসনক্ষমতায় ওই একতার কুলিশবরা বসে থাকলেও তারা ঠিকই বুঝতে পেরেছে মুসলমানদের মনস্তাত্ত্বিক জাগরণ ঘটেছে। তারা বুঝতে পেরেছে সে সংখ্যা খুব বেশি না হলেও বিপ্লব ঘটানোর জন্য সে সংখ্যা যথেষ্ট। এ জন্য তারা এখন যুক্তিবোধ ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে গুলি, বোমায় নেমেছে। এটার পরিণতি দুটি – হয় মুসলমানরা পরাজিত হবে, না হয় তারা। তবে যদি আদর্শিক এবং বাস্তব দর্শনগত শক্তির কথা বলেন, তাহলে কোনদিনই কোরান ও সুন্নাহর কাছে তারা দাঁড়াতে পারবে না। এ কথা বলার জন্যই আল্লাহ কুরআনে অতীত ইতিহাসের কথা বলেছেন।
বেশি দুরের কথা নয়, যারা মুক্ত বুদ্ধির কথা বলেন তারা কি জাকির নায়েকের সাথে কোন বাকযুদ্ধে জিততে পেরেছিলেন? পারেননি; কিন্তু তাকে কি করা হলো পিছ দরজা দিয়ে বাংলাদেশের লবন চোরকে দিয়ে তার চ্যানেল বন্ধ করা হলো। এভাবে যুক্তির দরজা বন্ধ করার লিস্টে অনেকেই আছেন, হোক তাকে আজ, হোক কাল টার্গেট করে তাকে নির্মূল করা হবেই হবে। তবে সত্য একটি জায়গায় স্থির আর তা হচ্ছে সত্যের জয় হয়, মিথ্যার পরাজয় হয়। মিথ্যা তো পরাজয়ের জন্য। মুসলমান বিরোধী ঘটনাপ্রবাহ যতই বাড়বে মনে রাখবেন ঘুম কিন্তু মুমিনদের ঠিকই হবে, হবে না মুসলমানদের ঘাড়ে চাপা গাদ্দাররূপী মুনাফেক ধর্মনিরপেক্ষরূপী হারামজাদা আর ‍মুসলমানদেরকে ভাগ করে মুসলমানদের জনপথে বিধর্মীদের প্রতিস্ঠিত করেছে যে সে মুনাফেক রূপী ইয়াজিদরা। ঘুম যদি হারাম হয়, তবে তা হবে তাদেরই।
কারণ তারা জানে তাদের পরিণতি সাদ্দাদ, নমরুদ, ফেরাউন, আদ, সামুদদের মত । আর এ কুরবানে যাদের সুই ফোঁটার যাতনা নিয়ে শাহাদাত এর মর্তবা ঘটবে তাদের কষ্টে আমাদের মন কষ্ট পাবে ঠিকই, চিরস্থায়ী জান্নাতেরই বাসিন্দা তারা কিন্তু ঠিকই হবেন।
আল্রাহ ও তার রাসুলের একটি কথাও যখন মিথ্যে হচ্ছে না, তখন এটি কি সত্য হবে না?


© Copyright
All rights reserved to Editor
Editor
Muhammad Shamim Akhter
Contact
Pallabi, Dhaka
Bangladesh
Mobile phone: 01536179630 / 01914042834
email: shamim2sh@gmail.com